Sunday , December 17 2017
Breaking News
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / নারীর স্বাস্থ্য / একাকী নারী ভ্রমণে ১০ সতর্কতা

একাকী নারী ভ্রমণে ১০ সতর্কতা

আগের মতো নারীরা এখন আর ঘরে বসে থাকে না। কাজের প্রয়োজনে কিংবা নিছক বেড়ানোর জন্যও অনেক নারী একাই বের হন। আর এক্ষেত্রে কয়েকটি সতর্কতা অবলম্বন করলে নিরাপদে ভ্রমণ করার সম্ভাবনা বাড়বে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে আইএএনএস।

১. নিরাপত্তায় গুরুত্ব দিন
সতর্কভাবে পথ চললে ভ্রমণে নিরাপদ থাকা সম্ভব। এ ক্ষেত্রে অপরিচিত কিংবা সন্দেহজনক ব্যক্তিদের এড়িয়ে চলতে হবে। এ ছাড়া রাস্তা বিষয়ে ধারণা থাকতে হবে এবং সম্ভব হলে মানচিত্র সঙ্গে রাখতে হবে। অপরিচিত মানুষের দেওয়া কোনো খাবার বা অনুরূপ জিনিস নেওয়া যাবে না। এ ধরনের অতি স্বাভাবিক কিছু নিয়ম সব সময় মেনে চলতে হবে।
২. বন্ধুবৎসল এবং কঠোর
কোনো স্থানে ভ্রমণ করতে গিয়ে কখনো আপনাকে বন্ধুবৎসল হতে হবে আবার কখনও কঠোর হতে হবে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয়তাই মুখ্য। অপরিচিত ব্যক্তিদের প্রশ্নের যদি উত্তর দিতে না চান তাহলে তাতে দোষের কিছু নেই। নিরাপত্তার খাতিরে কঠোরতায় দোষের কিছু নেই।
৩. হালকা থাকুন
সঙ্গে ভারি জিনিসপত্র থাকলে তা আপনার ভ্রমণে সমস্যা সৃষ্টি করবে। এ জন্য শুধু নিজের প্রয়োজনীয় জিনিসগুলোই নিতে হবে। বাড়তি কোনো জিনিস নেওয়া একেবারেই উচিত নয়।
৪. গন্তব্য সম্পর্কে ধারণা
আপনার গন্তব্য সম্পর্কে ভ্রমণের আগেই যথাসম্ভব তথ্য নিয়ে নিন। এ ছাড়া যে স্থানে যাচ্ছেন সেখানকার সংস্কৃতি, পোশাক ইত্যাদি কিছুটা হলেও জেনে নিন। তাদের সামনে বেড়ানোর উপযোগী পোশাক এবং বেশভূষা নিন।
৫. হোটেল
কোনো স্থানে ভ্রমণে যদি হোটেলে থাকতে হয় তাহলে আগেই সে তথ্য নিয়ে নিন। হোটেলের সিট সমস্যায় যেন পড়তে না হয় সে জন্য আগে থেকেই ফোন নাম্বার জোগাড় করে সিট বুকিং দিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে রেলওয়ে স্টেশন, বাস স্টপেজ ইত্যাদির কাছে হোটেল নেওয়াই ভালো।
৬. গণপরিবহন
বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণের ক্ষেত্রে পাবলিক ও প্রাইভেট উভয় ধরনের ব্যবস্থার সন্ধানই পাওয়া সম্ভব। তবে বহু মানুষের সঙ্গে পাবলিক ট্রান্সপোর্ট বা গণপরিবহনের সুবিধা নেওয়া অর্থ সাশ্রয়ী এবং ক্ষেত্রবিশেষে অপেক্ষাকৃত নিরাপদ।
৭. রাতে যাতায়াত এড়িয়ে চলুন
সকালেই যাত্রা শুরু করা আপনার নিরাপত্তা অনেকাংশে বাড়াবে। কারণ সন্ধার অন্ধকারে বহু অপকর্মের সুযোগ থাকে। তাই নিরাপত্তার খাতিরে দিনের বেলায় ভ্রমণ করুন এবং রাতের অন্ধকার এড়িয়ে চলুন।
৮. যোগাযোগ রাখুন
ভ্রমণের সময় বন্ধু-বান্ধব কিংবা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখুন। আপনার অবস্থান, পরবর্তী গন্তব্য, কোন গাড়িতে রয়েছেন কিংবা পথের ঠিকানা তাদের ক্রমাগত জানান। ট্যাক্সি কিংবা অনুরূপ বাহনে ওঠার সময় তার নম্বর টুকে দ্রুত কারো কাছে মেসেজ করে পাঠিয়ে দিন। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের মাধ্যমেও বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখুন।
৯. মূল্যবান কাগজপত্র সাবধান
বিদেশে ভ্রমণের সময় পাসপোর্টের মতো জরুরি কাগজপত্র হারিয়ে গেলে কি করতে হবে সেজন্য আগেই প্রস্তুতি রাখুন। গুরুত্বপূর্ণ মোবাইল ফোন নম্বর অনলাইনে সেভ করুন। এ ছাড়া আইডি কার্ড ও পাসপোর্টের ফটোকপি নিরাপদ স্থানে রাখুন। সম্ভব হলে স্ক্যান করেও তার কপি অনলাইনে রাখতে পারেন।
১০. মূল্যবান জিনিসপত্র সাবধান
ভ্রমণকালে গহনা, দামি মোবাইল ফোন, দামি ক্যামেরা, ল্যাপটপ, ট্যাব ইত্যাদি জিনিসপত্র বেশি নেবেন না। মূল্যবান গ্যাজেট সবার সামনে বের করা যাবে না। সম্ভব হলে একটি সাধারণ মোবাইল ফোন ব্যবহার করুন এবং মূল্যবান জিনিসপত্র ব্যাগের ভেতর রাখুন।

Check Also

প্রসূতির রক্তক্ষরণ বন্ধে বাংলাদেশি ডাক্তারের অভিনব পদ্ধতি

প্রসূতির মৃত্যু এখনও উন্নয়নশীল দেশগুলোতে বড় সমস্যা। আর এই মৃত্যুর প্রধান একটি কারণ রক্তক্ষরণ। ১৭ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.