Sunday , August 20 2017
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / লাইফস্টাইল / ডালা-কুলার কারিশমা

ডালা-কুলার কারিশমা

হলুদের তত্ত্ব থেকে বিয়ের মিষ্টি পান, এমনকি বধূবরণ—সব কিছুতেই দরকার হয় ডালা-কুলার। বর-কনে দুই পক্ষের রুচির প্রথম পরিচয় হয় তত্ত্ব দিয়েই। তাই তত্ত্বের সাজটা যেনতেন হলে চলবে না।

বহু আগে থেকেই তত্ত্বসাজের মূল উপকরণ ডালা। একসময় মোটা কাগজ দিয়ে তৈরি হতো ডালা। তাতে রঙিন কাগজ আর জড়ি দিয়ে উৎসবের আবহ ফুটিয়ে তোলা হতো। সঙ্গে থাকত বাঁশের তৈরি কুলা। এখন থিমভিত্তিক বিয়ের সাজে সব কিছুতেই লেগেছে বদলের হাওয়া। পুরু শক্ত কাগজের ডালা এখন ঢেকে দেওয়া হচ্ছে রংবেরঙের কাপড়ে। তসর, সিল্ক, মসলিন বা মখমলের মতো দামি কাপড় ব্যবহার করা হচ্ছে ডালায়। ডালার চারপাশ মুড়ে দেওয়া হচ্ছে ঝকমকে রিবন, লেস দিয়ে। তাতে বাড়তি ভ্যালু যোগ করছে চুমকি, পাথর বা পুঁতির নকশা। বাইরে দেখে কে বলবে, এই ডালা নিছক কাগজের তৈরি!
কাগজের কালারফুল ডালা ছাড়াও বিয়েতে বেশ জনপ্রিয় বাঁশের ডালা। বাঁশের ডালায় এমনিতেই বেশ একটা দেশীয় অভিজাত লুক থাকে। সঙ্গে ছিমছাম একটু ডিজাইন করলে জমকালো আমেজ আসে। গোল, চারকোনা, ডিম্বাকার, কলকা, কিংবা ষড়ভুজাকৃতিসহ বিভিন্ন আকারের বাঁশের ডালা পাওয়া যায় বাজারে। ছোট থেকে বড় বেশ কয়েকটি সাইজ রয়েছে। ডালার সাজে বৈচিত্র্য আনতে রঙিন কাতান কাপড় ব্যবহার করা হয়। কখনো লেস বা রিবনের সঙ্গে পুঁতি বা অন্যান্য নকশা অনুষঙ্গ ব্যবহৃত হয়। তত্ত্বের ডালা পিস বা সেট মিলিয়ে দুইভাবেই নেওয়া যায়। তিন থেকে পাঁচটি ডালা থাকে এক সেটে। বিয়ের ডালায় এখন বেতের ব্যবহারও বেশ চোখে পড়ে। বেতের ডালা-কুলা দুই-ই মিলবে বাজারে। তারপর উৎসবের আমেজ আনতে পছন্দসই রঙে রাঙানো হয়। কখনো শুকনো ফুল-পাতা কিংবা জরি-চুমকির ফিতা দিয়ে সাজিয়ে নিতে পারেন।

বাঁশের তৈরি কুলা আজও স্বমহিমায় উজ্জ্বল। নকশায় পরিবর্তন এলেও মূল উপকরণে আজও বাঁশকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়। থিম মাথায় রেখেই সাজানো হয় কুলা। মাঝে রংতুলির আলপনা আর কুলার চারপাশে রঙিন লেস মুড়ে দেওয়া হয়। কোনো কোনো কুলায় প্রদীপ আর হলুদ-মেহেদি বাটিও বসিয়ে দেওয়া হচ্ছে। মাটির বাটিতেও থাকে বাহারি রঙের আলপনা।

Check Also

সন্তানকে যে কারণে মারবেন না

দু-চারটা চড়-থাপ্পড় না খেলে নাকি সন্তান মানুষ হয় না। এমন কথা প্রচলিত আছে। কিন্তু অতিরিক্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *