Wednesday , October 18 2017
Breaking News
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / লাইফস্টাইল / বিয়ের প্রস্তুতিতে…

বিয়ের প্রস্তুতিতে…

6dbf7500aa3051261437276a8fb45cd9-untitled-5একনাগাড়ে চার-পাঁচ দিন অনুষ্ঠান। ভারী মেকআপ, চুলে স্প্রে না করলেই নয়। বিয়ের কনের ত্বকের ওপর দিয়ে এ ধকলটা কমবেশি যাবেই। ত্বককে এ কারণে আগেভাগেই প্রস্তুত করে নেওয়া ভালো। অনেকেই বিয়ের আগে কিছুটা সময় পান। তিন মাসের বেশি সময় পেলে পুরো সময়টা ভালোভাবে কাজে লাগান। নিজের যত্ন নিন। ফলাফল, বিয়ের অনুষ্ঠানগুলোতে পোশাকের সঙ্গে সাজটাও মনমতো করা যাবে।
ত্বকের যত্ন নেওয়া শুরু করার প্রথম ধাপটাই হবে রূপ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া। আপনার ত্বকের সমস্যাগুলো আলোচনার মাধ্যমেই বের হয়ে আসবে। এরপর পরবর্তী তিন মাস সেগুলোর সমাধান করতে হবে। ত্বকে শুষ্কতা, অমসৃণ রং, ব্রণ, র‍্যাশ—সমস্যা যেটাই হোক না কেন, চেষ্টা করুন এই তিন মাস একটু সময় বের করে ত্বকের যত্ন নেওয়ার। জানালেন রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন। চুলের ক্ষেত্রেও একই কথা। চুলের গুণাগুণ ভালো হলেই যে যত্ন নিতে হবে না, এমনটা ভেবে রাখলে ভুল করছেন। বিয়ের অনুষ্ঠানগুলোতে চুলের ওপর দিয়ে বড় ধকল যায়। আগে থেকেই এ জন্য চুলকে প্রস্তুত করে রাখা ভালো। চুল কাটতে ইচ্ছা হলে সেটা দুই মাস আগে কাটুন। সম্ভব না হলে এক মাস আগে কাটুন। চেহারার সঙ্গে চুলের কাটটা মানানোর জন্যই এ সময়টুকু নেওয়া। চুলের রং করাতে চাইলে ১৫-২০ দিন সময় হাতে নিয়ে করান। চুলের রং একটু এদিক-ওদিক হয়ে গেলে মন তো খারাপ হবেই, চেহারার সঙ্গে নতুন করা রংটাও না মানাতে পারে। চুলের রংটা চেহারার সঙ্গে মানাতেও একটু সময় লাগে। এর মধ্যে রংটা পছন্দ না হলে আরেকবার কিছু একটা করা হয়তো সম্ভব।
ওয়্যাক্স, ম্যানিকিউর, পেডিকিউর, থ্রেডিং, ফেশিয়াল বিয়ের দিনের জন্য উঠিয়ে রাখবেন না। ওয়াক্স, থ্রেডিং অনুষ্ঠানের আগের দিন করলে ভালো। ফেশিয়াল ও পুরো শরীরে স্ক্রাবিং ম্যাসাজ করাতে পারেন অনুষ্ঠানের এক-দুই দিন আগে। র‍্যাশের সমস্যা থাকলে সেগুলো কিছুটা কমে যেতে পারে। এ কারণেই দুই দিন আগে করানো ভালো।
অনেকেই ঠোঁটের উজ্জ্বলতা বাড়াতে চান। বাড়িতেই ১৫-২০ দিন আগে থেকে একটি প্যাক লাগাতে পারেন। হলুদ পাউডার এক চা-চামচ, গ্লিসারিন এক চা-চামচ, দুধ এক চা-চামচ মিশিয়ে লাগান। উপকার পাবেন। হাত ও পায়ের কনুই, পায়ের গোড়ালির খসখসে ভাব কাটাতে মধু আর গ্লিসারিন একসঙ্গে নিয়ে একটু কুসুম গরম করে পায়ের গোড়ালিতে লাগান। সারা রাত মোজা পরে থাকুন। খসখসে ভাব চলে যাবে। ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে জবের ময়দা এক টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া এক টেবিল চামচ, সরিষার তেল এক চা-চামচ, পরিমাণমতো পানি মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে ফেলুন। মুখে লাগান। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ত্বক খসখসে হলে চালের গুঁড়া, ডালের গুঁড়া, দুধ একসঙ্গে পরিমাণমতো মিশিয়ে লাগালে ত্বকে কোমলতা ফেরত আসবে। ত্বক উজ্জ্বল করতে চাইলে দুধ, মধু ও অ্যালোভেরার ভেতরের জেলটা একসঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করুন। বেসন এক চা-চামচ, দুধ দুই চা-চামচ, লেবুর রস অল্প পরিমাণে মিশিয়ে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখলেও উপকার পাবেন। এই প্যাকগুলো যেকোনো ত্বকে মানিয়ে যাবে। এ ছাড়া রোদে পুড়ে যাওয়া ত্বকে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করুন। চুলকালে ব্যবহার করবেন না।

চুলে সপ্তাহে তিন দিন তেল গরম করে মালিশ করুন। নিয়মিত। রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীনের প্রিয় প্যাকটিতে মেশানো থাকে টকদই, আমলা, পাকা কলা, মধু। সব ধরনের চুলেই এটা মানাবে। তবে চুল রং করা থাকলে আমলা মেশাবেন না। এই প্যাকটি চুলের গোঁড়া মজবুত করবে, ঝলমলে করবে ও নরম করবে। শীতকালে অনেকেই চুলে গরম পানি ব্যবহার করেন। প্রথমে চুলে ঠান্ডা পানি দিন, এরপর গরম পানি ঢালুন। না হলে চুলের আগা ফেটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। চুল শ্যাম্পু করার পর সাদা ভিনেগার ভালো করে পুরো চুলে লাগিয়ে ৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলবেন। চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। এ ছাড়া চোখের কালো ছোপ দূর করতে শসা আর আলু থেঁতলে সপ্তাহে তিন দিন চোখের ওপর লাগিয়ে রাখবেন ২০ মিনিট। উপকার পাবেন।

Check Also

১৫ কোটি টাকার অন্তর্বাস!

বিচিত্র এই দুনিয়ায় আর কী দেখতে ইচ্ছে করে। দিনদিন অবাক করা কাণ্ড ঘটিয়ে যাচ্ছে মানুষ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.