Thursday , June 29 2017
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / ফ্যাশন / শীত পোশাকে ডেনিম

শীত পোশাকে ডেনিম

১৯ শতকের মাঝামাঝি সময় থেকে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা। করা ডেনিম এখনো টিকে আছে বেশ সদর্পে। সময়ের সাথে সাথে জিন্সের ফ্যাশনে এসেছে পরিবর্তন। এর কাটিং, লেন্থ, মেকিং, কালার সব কিছুতেই আসছে পরিবর্তন আর এভাবেই প্রতিনিয়ত ডেনিম জনপ্রিয় হয়ে ওঠে তরুণদের কাছে। তবে এ সময়ে জিন্স শুধু ছেলেদের কাছে নয়, মেয়েদের কাছেও পছন্দের পোশাক হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে। শুধু প্যান্ট নয়, ডেনিম দিয়ে তৈরি হচ্ছে শার্ট, জ্যাকেট, স্কার্ট, মেয়েদের ফ্রক, কটি, ব্লেজার, হুডিসহ আরো অনেক পোশাক। পোশাক ছাড়াও বুট, হ্যাট, স্নিকার, বেল্ট, হ্যান্ডব্যাগ, লাগেজ ইত্যাদি অনেক ব্যবহার্য জিনিসের জন্য ম্যাটেরিয়াল হিসেবে থাকছে ডেনিমের কাপড়।
ডেনিসের মূল রঙ ইন্ডিগো বা নীল। তবে এখন নীল ছাড়াও নীলের বিভিন্ন শেড কালো, ধূসর, মাস্টার্ড, গ্রিন, লাল এমনকি সাদা জিন্সও পেয়ে যাবেন সহজেই। ডেনিম ফেব্রিকের ডায়িংয়ের বিষয়টি দুই ভাগে বিভক্ত। একটি হচ্ছে ইন্ডিগো ডায়িং অন্যটি সালফার ডায়িং। ট্র্যাডিশনাল ব্লু ও এর ব্লুর বিভিন্ন শেডের কাপড়গুলোতে হয় ইন্ডিপো ডায়িংএ। আর কালো, সবুজ, লাল ইত্যাদি রঙিন কালারগুলো করা হয় সালফার ডায়িংয়ের মাধ্যমে।
ডেনিমের ফেব্রিকেও এসেছে পরিবর্তন। এখন বেশ পাতলা ডেনিম বাজারে পাওয়া যায় এবং এগুলোর চাহিদাও বেশি। ডেনিমের ওয়াশিংয়েও এসেছে পরিবর্তন। ওয়াশড ডেনিম, এসিড ওয়াশড ডেনিম, ভিনটেজ ডেনিম, ডিস্ট্রেসড ডেনিম- বিভিন্ন ধরনের ওয়াশড ডেনিম রয়েছে বাজারে। ডেনিমের পোশাকে বিশেষ করে প্যান্টে নানা ধরনের ছেঁড়া তৈরি করে বা মাঝখান থেকে সুতা তুলে নিয়ে দেয়া হয় ফ্যাশন লুক। এটাকে বলে ডিস্ট্রেসড লুক। এ ধরনের প্যান্ট এ সময়ে বেশ জনপ্রিয়। এ ছাড়া বিভিন্ন রঙের কাপড় জোড়া দিয়ে তৈরি হচ্ছে জিন্সের প্যান্ট। কখনো নিচের অংশ সুতা ছাড়ানো অবস্থায় জিন্সে আনা হচ্ছে নতুন লুক। ফেড কালারও ডেনিমে বেশ জনপ্রিয়।
স্কিনটাইট ডেনিমগুলোই এ সময়ে বেশি পছন্দ করছে তরুণেরা। বুটকাট, স্ট্রেইটকাট, কমফোর্ট ফিট, স্লিম ফিট নানা ফিটিংয়ের প্যান্ট পাওয়া যাবে। স্লিম স্ট্রেট, লাইট ওয়াশডিসট্রাকটেড ডেনিম এখন বেশ চলছে। মেয়েদের বুটকাট, স্কিনি প্যান্টের চাহিদাও বেশি।
শার্টের মধ্যে হালকা ডেনিমগুলোই বেশি জনপ্রিয়। শার্টের কাটিং, প্যাটার্নে বৈচিত্র্যের পাশাপাশি কলার ও হাতায় থাকছে অন্য রঙ বা প্রিন্টের ফেব্রিক। জ্যাকটগুলোতে বোতামের ব্যবহার নজর কাড়বে। এ ছাড়া মেয়েদের স্কার্টে বোতামসহ বিভিন্ন এক্সেসরিজ ব্যবহার করে আনা হয়েছে বৈচিত্র্য।
পার্টি হোক অথবা কলেজ বা বন্ধুদের আড্ডা সব জায়গায় ডেনিম সহজেই মানিয়ে যায়। ফর্মাল ও ক্যাজুয়াল সব ধরনের পোশাক হিসেবেই ব্যবহার করতে পারেন ডেনিমের পোশাক। ফ্যাশনেবল হওয়ার সাথে সাথে ডেনিম আরামদায়ক, টেকসই এবং সব ধরনের ক্রেতার ক্রয়সীমার মধ্যেই রয়েছে এর মূল্য। ব্র্যান্ড ও ননব্র্যান্ড দুই ধরণের ডেনিসের পোশাকই বাজারে পাওয়া যায়। তাই তো ডেনিম সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ফ্যাশন জগতে জায়গা করে রেখেছে এখনো।

Check Also

‘শরীর সুন্দর, একে ঢেকে রাখতে হবে কেন?’

‘নগ্নতা আমাদের প্রকৃতিগত, নগ্নতাই মানুষকে মানুষ করে তোলে। আর শরীর সুন্দর, একে ঢেকে রাখতে হবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *