Monday , June 26 2017
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / ফ্যাশন / রঙ-বেরঙের ওড়না

রঙ-বেরঙের ওড়না

আধুনিক ফ্যাশনে ওড়না এখন বিশেষভাবে সমাদৃত। শুধু একটি ওড়না পোশাকে একে দেবে নতুনত্ব। একসময় শুধু রঙটা মিলিয়ে পরে নিলেই শেষ হয়ে যেত ওড়নার প্রয়োজনীয়তা। এখন কিন্তু আর ব্যাপারটা তেমন নেই। ওড়না দিয়েই নিজেকে করে তোলা যায় ফ্যাশনেবল। ফ্যাশনে এখন রঙের জোয়ার। শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, পাঞ্জাবি- সব পোশাকেই একাধিক রঙের ব্যবহার এখন ফ্যাশনের উল্লেখযোগ্য দিক। ওড়নার ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম নেই। রঙে-বেরঙের ওড়না এখন ব্যবহার হচ্ছে ফ্যাশনের অনুষঙ্গ হিসেবে।
নানা রঙের সমাবেশ ওড়নায় তৈরি করে এক নান্দনিক সৌন্দর্য। যেকোনো সাদামাটা সাজে পূর্ণতা দিতে পারে একটি রঙিন ওড়না।
একই ওড়নায় নানা রঙের ব্যবহার এখন বেশ জনপ্রিয়। কামিজের সাথে মিলিয়ে নয় বরং ওড়নার সাথে মিলিয়ে কামিজ পরার চলটা ফিরে এসেছে। টাইডাই বাটিকের পাশাপাশি সুতি, খাদি, সিল্ক, মসলিন, নানা রকমের জর্জেট সেই সাথে তাঁতের ওড়না এখন বাজার জুড়ে বিস্তার। নানা রঙের শেডের ওড়না যেমন রয়েছে তেমনি রয়েছে একই ওড়নায় মাল্টিকালারের সমাবেশ। এর সুবিধা হচ্ছে একটি ওড়না দু-তিনটি পোশাকের সাথে মিলিয়ে পরা যায় সহজেই। শেডের ওড়নার চাহিদাও রয়েছে বেশ।
টাইডাই করা ওড়না এখন ফ্যাশনে বেশ জনপ্রিয়। দুই বা তিন রঙে টাইডাই করা হয়। জর্জেট ও সুতি দুটো কাপড়েই টাইডাই করা ওড়না হচ্ছে। এ ছাড়াও রয়েছে লেসের ব্যবহার। অনেকে চওড়া বা সরু লেস ডিজাইন করে ওড়নায় বসান। মসলিন ও জর্জেটের ওপর সাধারণত লেস লাগানো হয়। সাধারণত জমকালো পোশাকের সাথে এই ওড়নাগুলো ব্যবহার করা হয়। অ্যামব্রয়ডারি করা ওড়নাও পাওয়া যায়। জর্জেট ও সুতির ওড়নাতে অ্যামব্রয়ডারি বেশি দেখা যায়।
নানা রকমের পাড় ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন ওড়নায়। সুতি, কুরুশের কাজ, নেটের কাজ করা পাড়ও দেখা যায়। এ ছাড়া রয়েছে নেটের ওড়না। এগুলো সাধারণত কিছুটা জমকালো হয়ে থাকে। ঊষা সিল্কের শোরুমে কাতানের ওড়না পাবেন বিভিন্ন রঙে। একরঙা সালোয়ার-কামিজের সাথে রঙ মিলিয়ে একটি কাতানের ওড়না পোশাকে যোগ করবে অভিনবত্ব।
একটি বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের পদস্থ কর্মকর্তা সাজিয়া আফরিন। পোশাক হিসেবে সালোয়ার কামিজেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। সুতরাং ওড়না নিয়ে তার রয়েছে বিশেষ আগ্রহ। থ্রিপিসের সাথে মিলিয়ে ওড়না তো কেনেনই। এ ছাড়া সিঙ্গেল ওড়নার বড় একটা কালেকশন রয়েছে তার। বিভিন্ন ধরনের ওড়নার সাথে ম্যাচিং করে পোশাক তৈরি করেন তিনি। তিনি বলেন, সাধারণ সালোয়ার কামিজের সাথে যদি চমৎকার আকর্ষণীয় একটি ওড়না নেয়া হয় তাহলে সাধারণ পোশাকেও অনেক গর্জিয়াস দেখায়।
শুধু কামিজ নয় ফতুয়া, কুর্তি, টপসের সাথেও পরতে পারেন নানা রঙের ওড়না। কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে জমকালো দাওয়াত সব উপলক্ষকেই রঙিন করতে পারে নানা রঙের ওড়না। ফ্যাশনের ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে উজ্জ্বল রঙের কামিজের সাথে একশেড গাঢ় বা হালকা রঙের ওড়না ভালো লাগবে। শুধু এক রঙের সালোয়ার কামিজের সাথে নিন মাল্টিকালার ওড়না। সুতির পোশাকের সাথে সুতির ওড়নাই ভালো মানায়। অন্য দিকে সিল্কের সাথে নিতে পারেন সিল্ক, মসলিন, ধুপিয়ান এমনকি জর্জেটও।
বিভিন্ন মার্কেট ছাড়াও বুটিক হাউজগুলোতে রয়েছে ওড়নার বিশাল সম্ভার। দামটা পড়বে কাপড় ও কারুকাজ অনুসারে।

Check Also

‘শরীর সুন্দর, একে ঢেকে রাখতে হবে কেন?’

‘নগ্নতা আমাদের প্রকৃতিগত, নগ্নতাই মানুষকে মানুষ করে তোলে। আর শরীর সুন্দর, একে ঢেকে রাখতে হবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *