Monday , August 21 2017
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / নারীর স্বাস্থ্য / জরায়ু মুখে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে অ্যাসপিরিনে!

জরায়ু মুখে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে অ্যাসপিরিনে!

প্রতিদিন অ্যাসপিরিন জাতীয় ব্যাথানাশক ওষুধ সেবন করলে সার্ভিক্যাল বা জরায়ু মুখে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায়। এক্ষেত্রে যারা সপ্তাহে ৭ বা এর অধিক বার অ্যাসপিরিন সেবন করেন তাদের এ ঝুঁকি কমে ৪৭ শতাংশ। আর যারা ৫ বা তার অধিক বছর ধরে এ ওষুধ সেবন করেন তাদের এ ঝুঁকি কমে ৪১ শতাংশ।

যুক্তরাষ্ট্রের রুশওয়েল পার্ক ক্যান্সার ইন্সটিটিউটের এক গবেষণায় এসব তথ্য উঠে এসেছে। সম্প্রতি লোয়ার জেনিটাল ট্রাক্ট ডিজিস জার্নালে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৮২ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত সার্ভিক্যাল ক্যান্সারে আক্রান্ত ৩২৮ জন এবং এ রোগে আক্রান্ত নয় এমন ১ হাজার ৩১২ জন গবেষণায় অংশ নেন। অংশগ্রহণকারীরা সবাই ছিলেন একই বয়সের। তারা কিভাবে এবং কত বছর ধরে অ্যাসপিরিন ও প্যারাসিটামল সেবন করেছেন বা করছেন সে সূত্র ধরে এ গবেষণাটি করা হয়। তবে অ্যাসপিরিন গ্রহণে কেন এ ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায় সে ব্যাপারে গবেষণায় কিছুই বলা হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্রের রুশওয়েল পার্ক ক্যান্সার ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক কার্স্টেন ময়সিচ বলেন, অ্যাসপিরিন সেবনে সার্ভিক্যাল ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যাওয়ার আকর্ষণীয় অপশন রয়েছে। তবে নিয়মিতভাবে অ্যাসপিরিন সেবন করার পূর্বে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

প্রসঙ্গত, জরায়ুর নীচের দিকের ৩ ভাগের ১ ভাগ অংশকে সার্ভিক্স বা জরায়ু মুখ বলে। আর এই অংশের ক্যান্সারকে সার্ভিক্যাল ক্যান্সার বা জরায়ু মুখের ক্যান্সার বলে। ভারতীয় উপমহাদেশে নারীদের ক্যান্সারের শতকরা ২০ ভাগই জরায়ু মুখের ক্যান্সার। আর অ্যাসপিরিন হলো এক প্রকারের ব্যথা, প্রদাহ ও জ্বরনাশক ঔষধ। এটি হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতেও ব্যবহৃত হয়।

Check Also

নিরাপদ মাতৃত্ব গর্ভাবস্থায় রক্তাল্পতা

যদি গর্ভাবস্থায় রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা ১০০ মিলিলিটারে ১০ গ্রাম থেকে কম থাকে অথবা রক্তে লোহিত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *